টেস্ট মর্যাদা স্থায়ী থাকছেনা!

টেস্ট মর্যাদাস্পোর্টস ডেস্ক : কোন দেশের একচেটিয়া টেস্ট মর্যাদা আর থাকছে না। প্রতি পাঁচ বছর পর পর ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) টেস্ট খেলুড়ে দলগুলোর পর্যালোচনা করবে। এই সময়ে তাদের সাফল্য-ব্যর্থতার ওপর নির্ভর করবে তাদের টেস্ট মর্যাদা। সম্প্রতি দুবাইয়ে হওয়া আইসিসির নির্বাহী কমিটির সভাতেই এ প্রস্তাব রাখা হয়েছে।

আইসিসির সর্বশেষ পূর্ণ সদস্য পদ পেয়েছে বাংলাদেশ। এর পরে আর কোনও দলকে সে তালিকায় যোগ করা হয়নি। তবে নতুন করে এই তালিকায় নাম লেখাতে হলে সে দেশকে কঠিন পরীক্ষার মুখে পড়তে হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে আইসিসি।
ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো, বুধবার এক অণুচ্ছেদে আইসিসির এই নতুন প্রস্তাব প্রকাশ করেছে। সেখানেই বলা হয়, আইসিসির পূর্ণ সদস্যপদ আর স্থায়ী থাকছে না। মাঠের পারফরম্যান্সের উপরেই তাদের ভাগ্য নির্ভর করবে। প্রতি পাঁচ বছর পর পর আইসিসি দলগুলোকে নিয়ে পর্যালোচনায় বসবে। সেখানে তাদের সাফল্য-ব্যর্থতার ওপর নির্ভর করবে তাদের টেস্ট মর্যাদা থাকবে কিনা।
এরই মধ্যে আইসিসি পূর্ণ সদস্য দেশগুলোর কাছে ই-মেইল যোগে বিষয়টি জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেই ক্রিকইনফো জানিয়েছে। আইসিসির প্রস্তাব অনুযায়ী, পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে পূর্ণ সদস্য দেশগুলো পরিণত হতে পারে সদস্য দেশে।
মূলত নতুন দেশ হিসেবে আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ডের মতো দলের অন্তর্ভূক্তি সহজ করতেই এই পরিকল্পনা নিয়েছে ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ সংস্থা। এছাড়া পিছিয়ে পড়া জিম্বাবুয়ে বা ভুগতে থাকা ওয়েস্ট ইন্ডিজও পড়তে পারে বাদের তালিকায়।
এখন থেকে আইসিসিতে সদস্য দেশের ভাগ থাকবে দুটি। একটি পূর্ণাঙ্গ সদস্য পদ, অন্যটি সহযোগি দেশ। পরীক্ষা দিতে হবে সহযোগি দেশগুলোকেও। প্রতি দুই বছর পর পর তাদের পারফরম্যান্স পর্যবেক্ষণ করা হবে।

Post Author: shadhinkantho

Leave a Reply