পিরোজপুরের স্বরূপকাঠীতে ট্রলার ডুবি; নিখোজ ১

স্বরূপকাঠী প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের স্বরূপকাঠী উপজেলার মিয়ারহাট লঞ্চঘাট থেকে ছারছিনা বাসষ্ট্যান্ডের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার সময় যাত্রীবাহী ওই ট্রলারটিকে অন্য একটি ট্রলার ধাক্কা দিলে কঁচা নদীর শাখাখালে ওই ট্রলারটি ডুবে যায়। ঘাতক ট্রলারটিকে স্থানীয় জনতা আটক করলে নেছারাবাদ থানা পুলিশ ট্রলারটি তাদের হেফাজতে নিয়ে যায়।ডুবে যাওয়া ট্রলারে থাকা ইশতিয়াক আহমেদ(১৮) জানান, শুক্রবার সকাল ৭টা ২০

মিনিটের দিকে আমরা ট্রলারে করে ২৫/৩০ জন যাত্রী ছারছিনা বাসস্ট্যান্ডের উদ্দেশ্যে যাত্রা করি । এ সময় সুন্দর আলী মিয়ার স’মিলের সামনে নাজিরপুর উপজেলার কলারদোয়ানিয়া

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নান্না মিয়ার মালিকানাধীন মালবাহী ট্রলার আনন্দ-৭ খেয়ার ট্রলারটিকে ধাক্কা দিলে সেটি ডুবে যায়। ঘন কুয়াশায় লোকজন সাতরে

উপরে উঠলেও সদ্য যোগদান করা স্বরূপকাঠি উপজেলা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মোঃ শহিদুল

ইসলাম উঠতে পারেননি।

ট্রলারে থাকা শহিদুল ইসলামের চাচা শশুর বলেন, ট্রলারটি ডুবে যাওয়ার সময় শহিদের হাত

থেকে আমি তার ছেলেটিকে নিয়ে উপরে উঠি। কিন্তু শহীদ নিখোঁজ রয়েছে। নিখোঁজ

শহিদুল স্বরূপকাঠী ও নাজিরপুর উপজেলার হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করে

আসছেন।

এ ব্যাপারে নেছারাবাদ থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম জানান, ঘাতক ট্রলার

আনন্দ-৭ আটক করা হয়েছে। নিখোঁজ শহিদুল ইলাম স্বরূপকাঠী ও নাজিরপুর উপজেলার

হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা বলে তিনি নিশ্চিত করেছেন।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মিয়ারহাট ব্যাপারী বাড়ির মৃত আবুল কালাম মিয়ার ছেলে

শহিদুল ইসলামকে (৫২) পানি থেকে তোলার জন্য স্বরূপকাঠি ফায়ার সার্ভিস চেষ্টা

চালিয়ে যাচ্ছেন।

Post Author: abubakar siddik

Leave a Reply